ছন্দে আগমনী    

 

“বর্ষা” বিদায় নিচ্ছে দেখে                আকাশ খানা হল রাঙা

ফেলছে শরৎ পা,                             শিশির ঝরে নিত্য,

ছোট বড় মাঝ বয়সী                        ঢাকের বাদ্যি হৃদয় মাঝে

সবাই জানে তা ।।                            ভরায় মোদের চিত্ত ।।

 

কাশবনের আঁচল ছুঁয়ে                     শাপলা শালুক পদ্ম ফোটে

নদীর ধারে ধারে,                               আকাশ পানে চেয়ে ,

ফুলে ফুলে নীলান্তিকা                      “টেকনো মন’’ ও মাতোয়ারা

করবে বরণ তারে ।।                          “মা” কে কাছে পেয়ে ।।

 

পেঁজা তুলো মেঘমালা              ঘোটক চেপে দশভূজা

আকাশ আঙ্গিনায়                  শরৎ শিউলি হাসে ,

বিচিত্র রূপ ধারন করে             সাদা থোকা কাশফুল

অচিন দেশে যায় ।।               সবাই ভাল বাসে ।।

 

“আগমনী”র বার্তা নিয়ে             ইঁদুর, ময়ুর, লক্ষ্মী প্যাঁচা

এলেন শরৎ রানী,                     বিদ্যা দেবীর হাঁস ,

শিউলি দেবে আসন পেতে               এলো দেবী সিংহে চড়ে

আপন আঁচল খানি ।।              করতে অসুর নাশ ।।

 

আবার এল বছর ঘুরে              মা গো তোমার “আগমনী”

আমার তোমার জন্য,               সকল মনের আশা ,

পুজ্জোর গন্ধ বুকে মেখে                পুরাতনে যাদুর ছোঁয়া

সবাই মোরা ধন্য।।                     সবুজ ভালবাসা।।

 

জয়ন্তী মঙ্গলা কালী

ভদ্রকালী কপালিনী

দুর্গা-শিবা ক্ষমা ধাত্রী

“মা” যে মোদের “আগমনী” ।।

 

Supriyo Sengupta

E : jyoti_919@rediffmail.com